Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ , সময়- ৫:৩৫ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
দাড় কাউয়া মুক্ত আওয়ামী লীগ চাই, বিলবোর্ডের ছবি ভাইরাল কাল আদালতে খালেদার হাজিরার দিন যুক্তরাষ্ট্রকে চীনের সঙ্গে সম্ভাব্য যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে হবে: মার্কিন এ্যাডমিরাল 'গণতান্ত্রিক অধিকার আদায়ে আমরা দৃষ্টান্ত স্থাপন করব' নেতাকর্মীদের ধৈর্যহারা না হওয়ার আহ্বান মির্জা ফখরুলের পৃথিবীর কোনো দেশে নজির নেই বন্দির সাথে সহযোগি থাকার : সেতুমন্ত্রী | প্রজন্মকণ্ঠ ডিসেম্বরেই মন্ত্রিত্ব থেকে অবসরে ঘোষণা দলেন অর্থমন্ত্রী  | প্রজন্মকণ্ঠ বাড্ডায় ভেঙে পড়লো ইউলুপের বিম তরুণ প্রজন্মই জাতির ভবিষ্যৎ : স্পিকার | প্রজন্মকণ্ঠ  বিশ্ব ভালবাসা দিবসে প্রধানমন্ত্রী বরাবর খোলা চিঠি দিলেন ঝিনাইদহের সেই রেল আব্দুল্লাহ

বিশ্ব ইজতেমা : ঈমান ও আমলের সংশোধনই মুসলিম উম্মাহর সৌভাগ্যের প্রসূতি


অনলাইন ডেস্ক

আপডেট সময়: ১৮ জানুয়ারী ২০১৮ ১২:৫৫ পিএম:
বিশ্ব ইজতেমা : ঈমান ও আমলের সংশোধনই মুসলিম উম্মাহর সৌভাগ্যের প্রসূতি

প্রতি বছরের মতো এবারও টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে অনুষ্ঠিত হচ্ছে  বিশ্ব ইজতেমা। ঈমান ও ইয়াকীনে বলীয়ান হওয়া এবং এর বার্তা পৃথিবীর দিকে দিকে পৌঁছে দেওয়ার প্রত্যয়ে উজ্জীবিত করাই এই ইজতেমার মূল লক্ষ্য। আর এ কথা বলাই বাহুল্য যে, মুক্তি ও সফলতার সকল প্রশ্নই ঈমান ও ইয়াকীনের সঙ্গে যুক্ত।

ঈমান ও ইয়াকীন যেমন ব্যক্তিকে সকল অন্যায় ও পাপাচার থেকে বিরত রাখে তেমনি সকল ন্যায় ও কল্যাণে উদ্বুদ্ধ করে। একজন ঈমানদার মানুষ শুধু ব্যক্তিজীবনেই আদর্শ মানুষ হন না, তিনি তার চারপাশের জগতের জন্যও হয়ে থাকেন আল্লাহর রহমত।

ঈমান মানুষের অন্তরে জাগ্রত করে আল্লাহর কাছে জবাবদিহিতার অনুভূতি। সকল প্রতিভা ও যোগ্যতা, সকল দায়িত্ব ও কর্তব্য এবং আল্লাহর সকল দান ও নেয়ামত সম্পর্কে ঈমান মানুষকে দায়িত্বশীল করে। আমার সকল কথা ও কাজ সম্পর্কে আল্লাহর কাছে জবাব দিতে হবে-এই বিশ্বাস যত দৃঢ় হবে ততই তার বোধ ও বিশ্বাস, কর্ম ও জীবন আলোকিত হয়ে উঠবে।

আজ একদিকে যেমন শিক্ষা-দীক্ষা, সভ্যতা-সংস্কৃতি এবং আবিষ্কার ও উদ্ভাবন পিছনের সকল সময়কে অতিক্রম করে গেছে তেমনি অন্যায়-অবিচার, দুর্নীতি ও অনৈতিকতা এবং পাশবিকতা ও হিংস্রতাও অতীতের সকল রেকর্ড ভঙ্গ করেছে।

আজ বিশ্বের মানবতাবাদী চিন্তাবিদরা মানব-জাতির এই দ্বিমুখী যাত্রায় অত্যন্ত চিন্তিত ও অস্থির! উন্নতি ও অবনতির  প্রচন্ড বৈপরীত্যে হতবাক! কিন্তু আসলেই কি বৈপরীত্য? শুধু জ্ঞান ও তথ্যের এবং বাক্য ও যন্ত্রের উন্নয়নই কি উন্নতি? উন্নতি নয় বলেই তো এর সঙ্গে যুক্ত হয় অবনতি ও অধঃপতনের ধারা।

মানুষের অন্তকরণ যখন ঈমান ও বিশ্বাসে আলোকিত হয়, যা শেষ নবী হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বিশ্ববাসীর জন্য নিয়ে এসেছেন তখনই তার প্রকৃত উন্নতির সূচনা হয় আর তখনই তার কর্ম ও চরিত্র এবং জ্ঞান ও প্রজ্ঞা উন্নতি ও কল্যাণের পথে ধাবিত হয়। কোনো এক অশুভ মুহূর্তে উন্নতি ও অগ্রগতির যে সংজ্ঞা বিশ্ব তৈরি করে নিয়েছিল-এ ধরনের ঈমানী সমাবেশগুলো হল তার ঔষধ।আল্লাহ তাআলা আমাদের সবাইকে ঈমানী চেতনায় উজ্জীবিত হওয়ার তাওফীক দান করুন।

 


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top