Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , সময়- ৬:২৯ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
খালেদা জিয়ার চিকিৎসা বিতর্ক কেন ? বিএনপি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সাক্ষাত শেষে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী | প্রজন্মকণ্ঠ পছন্দের হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আবেদন খালেদা জিয়ার | প্রজন্মকণ্ঠ খালেদা জিয়া কারাগারের বাইরে থাকার সময়ও জনগণ তার ডাকে সাড়া দেয়নি : ওবায়দুল কাদের বিএনপি-জামায়াত ক্লিনহার্ট অপারেশন চালিয়ে আ'লীগের অসংখ্য নেতাকর্মীকে নির্যাতনের শিকার করেছিল : প্রধানমন্ত্রী  ধর্মমন্ত্রী ও ভূমিমন্ত্রীর  কড়া সমালোচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রিজভীর নেতৃত্বে মিছিল করেছে বিএনপি আ'লীগের প্রতিনিধিদলের উত্তরবঙ্গ সফর শুরু । প্রজন্মকণ্ঠ   বিজিবি-বিএসএফ সম্মেলন : সীমান্ত হত্যা শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনার অঙ্গীকার | প্রজন্মকণ্ঠ  সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে মাঠে নামছে স্বাগতিক বাংলাদেশ, আগামীকাল | প্রজন্মকণ্ঠ

প্রেক্ষাপট : মামলার রায় পরিবর্তি অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতির সম্ভাবনা!


ওয়াহিদুজ্জামান

আপডেট সময়: ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ১১:২৭ এএম:
প্রেক্ষাপট : মামলার রায় পরিবর্তি অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতির সম্ভাবনা!

জিয়া অরফানেজ মামলায় বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার ৫ বছরের সাজা এবং তারেক জিয়াসহ অপর পাচ আসামীর ১০ বছর করে জেল ও জরিমানা সম্বলিত বিজ্ঞ আদালত আজ বৃহস্পতিবার ৬৩২ পৃষ্ঠার রায় প্রদান করেছেন।

বাংলাদেশের ইতিহাসে কোন সাবেক প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলার রায়ে সাজা এই প্রথম। আইনের শাসন ও বিচারে জনমনে একটা বিষয় প্রতিয়মান হলো- 'কেউ আইনের উর্ধে নন।'

‎তবে সাজা ঘোষনা পরবর্তি দেশের রাজধানী সহ সর্বত্র একটা থমথমে পরিস্থিতি গনমাধ্যমের দৌলতে উপলব্ধি করা যাচ্ছে।

‎২০১৮ সালের সুচনা হতেই সরকার ও প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপির নানা কর্মসূচীর অবতারণা শুরু। ইতোমধ্যে বিএনপি আগামী শুক্র ও শনিবার শান্তি পুণ্য বিক্ষোভ কর্মসূচীর ডাক দিয়েছে। প্রশ্ন এখানেই- শান্তি পুণ্য কর্মসূচী?

সদ্য আজকের জিয়া অরফানেজ মামলার রায়কে নির্দিষ্ট করে রাজপতে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি লক্ষনীয়। আমজনতা আজকের আধুনিক যুগে এটা অবগত হয়েছেন, রাজনৈতিক কর্মসূচী বা কোন জনগুরুত্য পূন্য ইস্যু কে কেন্দ্র করে, সৃষ্ট অবস্থান প্রতিবাদ শান্তি পুণ্য হওয়ার নজির বিশেষভাবে এ দেশে পরিলক্ষিত নয়।

খালেদা জিয়ার মামলার রায়কে কেন্দ্র করে, জনগন ও পুলিশের কয়েকজন আহত হয়েছেন। কাদানে গ্যাস ছোড়া, মোটরসাইকেল পোড়ানো, ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনাগুলো সংগঠিত হয়েছে। উক্ত ঘটনা গুলো মামলার রায় ঘোষনার আগেই বকশীবাজারের অনুষ্ঠিত আদালত প্রংগন সংলগ্ন এলাকায়ই সংঘটিত হয়।

জনমনে প্রশ্ন জাগতেই পারে, বিএনপি ঘোষিত আগামী দুইদিনের বিক্ষভ কর্মসূচি কতটা শান্তি পুণ্য ভাবে দেশব্যাপি অনুষ্ঠিত হওয়া সম্ভব?

সরকারের ভুমিকা জনগনের জানমাল রক্ষায়, প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন। সেটা কাম্য। তবে সাধারন জননিরাপত্তা বিঘ্নিত যে হবে না, এ গ্যারান্টি জনসাধারন কতটুকু পাবেন?

এদেশের রাষ্ট্রযন্ত্র বিকল হওয়ার নজির না থাকলেও প্রশ্নবিদ্ধ অস্থিতিশীল পরিস্থিতির অবতারনা অতীতে জনগন বহুবার মুখোমুখি হয়েছেন। এমতাবস্থায় জনমনে অতংকিত হওয়াটা অমুলক কোন বিষয় নয়।

বিএনপি চেয়ারপার্সনের নিম্ন আদালতের রায়ের বিপক্ষে আপীল করা ও দলীয় কর্মসূচী কালীন দেশের পরিস্থিতি কোন দিকে ধাবিত হবে, বলা দুরুহ।

তবে জনমনের আতংকিত মনোভাবের বহু যৌক্তিক কারন, ইতোমধ্যে প্রতিয়মান। আর সরকারের ভুমিকার বিষয়ে কোন প্রশ্ন ও সমালোচনার প্রসংজ্ঞ যে আসবে না, এটা বলা যায় না। কারন যখনই অস্থিতিশীল অবস্থা পর্যবেক্ষিত হবে, তখনই সরকারের আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উপযুক্ত ব্যাবস্থা গ্রহন করবেন। যা স্বাভাবিক। তদুপরি নানা অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতির অবতারনা যে হবে না, তা বলা যায় না।

সুতারাং, দেশের বাস্তবিক পরিস্থিতি যেকোন অপ্রত্যাশীত অবস্থার দিকে যাবে না, একথা বলা যায় না।আর এটাই দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপট।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top