Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারী ২০১৯ , সময়- ৭:৪৪ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
১০টি অঞ্চলে পাঁচ ধাপে অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন আওয়ামী লীগ দেশ চালাতে পারবে না : রব ৫ কোম্পানির পানি মানহীন : বিএসটিআই পরিকাঠামো উন্নয়নে বিপুল অর্থ ঋণ দিচ্ছে চিন বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছেন এরশাদ  মুন্সিগঞ্জের ট্রলারডুবি যে সত্যগুলো উন্মোচন করল রোহিঙ্গাদের কথা শুনলেন রাষ্ট্রসংঘের প্রতিনিধিরা সম্ভাবনাময় অন্যান্য রফতানি পণ্যে প্রণোদনা : বাণিজ্যমন্ত্রী আওয়ামী লীগের বিজয় উৎসব জনগণের সঙ্গে মশকরা কোনো অন্যায় সহ্য করা হবে না : মন্ত্রিসভায় শেখ হাসিনা

রাসায়নিক অস্ত্রের ব্যবহার প্রমাণিত হলে সিরিয়ায় হামলা করব : ফ্রান্স


অনলাইন ডেষ্ক

আপডেট সময়: ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ১২:২৯ পিএম:
রাসায়নিক অস্ত্রের ব্যবহার প্রমাণিত হলে সিরিয়ায় হামলা করব : ফ্রান্স

সিরিয় সরকার রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আর যদি তা প্রমাণিত হয় তবে সিরিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকোঁ এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন।

মঙ্গলবার এক বক্তব্যে এ হুঁশিয়ারি দেয়ার পাশাপাশি ম্যাকরন একথাও বলেছেন, প্যারিস এখনক পর্যন্ত সিরিয়া সরকারের পক্ষ থেকে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের কোনো প্রমাণ পায়নি।

তিনি বলেন, 'রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের ক্ষেত্রে আমরা একটি অনতিক্রম সীমা নির্ধারণ করে দিয়েছি। যদি আমরা প্রমাণ পাই, রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে। তবে, যেখানে রাসায়নিক অস্ত্র বানানো হচ্ছে, আমরা সেখানে হামলা চালাবো।'

ম্যাকোঁ বলেন, 'বেসামরিক লোকদের ওপর নিয়ম ভেঙে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের বিষয়টি নিশ্চিতভাবে প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি আমাদের সশস্ত্রবাহিনী।'

এর আগে ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফ্লোরেন্স পারলি শুক্রবার এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, দামেস্ক সিরিয়ার জনগণের ওপর রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে এমন তথ্য নিশ্চিতকারী কোনো দলিল প্যারিসের হাতে আসেনি।

এদিকে, সিরিয় সরকার বেসামরিক ব্যক্তিদের ওপর রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের বিষয়টি অস্বীকার করে আসছে। তাদের দাবি, কেবল সশস্ত্র বিদ্রোহী ও জঙ্গিদের অবস্থান লক্ষ্য করেই রাসায়নিক অস্ত্রের হামলা চালানো হচ্ছে।

আমেরিকা ও তার মিত্ররা সিরিয়ার বিভিন্ন রাসায়নিক হামলার জন্য দামেস্ক সরকারকে দায়ী করার চেষ্টা করছে। বিশেষ করে ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে সেদেশের ইদলিব প্রদেশের খান শেইখুন এলাকায় চালানো রাসায়নিক হামলার জন্য সিরিয়া সরকারকে দায়ী করার জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে ওয়াশিংটন। ওই হামলায় অন্তত ১০০ মানুষ নিহত হয়।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, মার্কিন মদদপুষ্ট সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে সিরিয়া সরকারের উল্লেখযোগ্য বিজয় থেকে গণদৃষ্টিতে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য বাশার আল-আসাদ সরকারের বিরুদ্ধে রাসায়নিক অস্ত্র প্রয়োগের অভিযোগ আনছে ওয়াশিংটন ও তার মিত্ররা। 

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্প্রতি বলেছে, উগ্র জঙ্গিদের রক্ষা করার লক্ষ্যে দামেস্কের বিরুদ্ধে রাসায়নিক অস্ত্র প্রয়োগের অভিযোগ আনা হচ্ছে।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top