Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮ , সময়- ১২:০৬ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
ভারতের সেনার অস্ত্র ভাণ্ডারে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিহত ৬ আহত অনেক স্কাইপি বন্ধ করে সরকার ঘৃণ্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করল : রিজভী টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২ : ইয়াবা ও আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার নৌকা থেকে যারা ধানের শীষে তারা ‘ভণ্ড’ ও ‘প্রতারক’’ | প্রজন্মকণ্ঠ আস্থার প্রতীক নৌকা আর ধানের শীষ | প্রজন্মকণ্ঠ ভারতের ‘সাহায্য প্রয়োজন’ ছাড়া বাংলাদেশের নির্বাচন সম্ভব নয় !  চাঞ্চল্যকর সাত খুনের ঘটনার মামলার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ | প্রজন্মকণ্ঠ খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন | প্রজন্মকণ্ঠ অবশেষে আটক সেই হেলমেটধারী | প্রজন্মকণ্ঠ আমেরিকার চাপের কাছে স্বাধীনচেতা দেশ ইরান নতি স্বীকার করবে না

মানুষের রক্ত পান করে মানুষ নিজেও ! অবাক তথ্য জানাল চিকিৎসাশাস্ত্র


ডেস্ক রিপোর্ট

আপডেট সময়: ২১ মে ২০১৮ ৩:০৯ পিএম:
মানুষের রক্ত পান করে মানুষ নিজেও ! অবাক তথ্য জানাল চিকিৎসাশাস্ত্র

বিচিত্র খবর, প্রজন্মকণ্ঠ : একজন সুস্থ-সতেজ যুবক বা যুবতীর তাজা রক্তের খোঁজে, রাতের অন্ধকারে তারা বের হয়। এবং যার রক্ত পান করে, সেও ওই একই পথের পথিক হয়ে যায়। সত্যিকারের এমন ভ্যাম্পায়ার রয়েছে কি না, তা এখনও জানা যায়নি। ভ্যাম্পায়ার, ড্রাকুলা— এদের নাম শুনলেই ভয়ে কেমন আত্মারাম খাঁচাছাড়া হয়ে যায়। কারণ, এরা মানুষের রক্ত পান করে। 

একজন সুস্থ-সতেজ যুবক বা যুবতীর তাজা রক্তের খোঁজে, রাতের অন্ধকারে তারা বের হয়। এবং যার রক্ত পান করে, সেও ওই একই পথের পথিক হয়ে যায়। সত্যিকারের এমন ভ্যাম্পায়ার রয়েছে কি না, তা এখনও জানা যায়নি। তবে ভ্যাম্পায়ার নিয়ে হলিউডে বেশ কিছু ভয়ের ছবি তৈরি হয়েছে এ যাবৎ।  

কিন্তু, চিকিৎসাবিজ্ঞান এক তথ্য উল্লেখ করেছে, যাতে প্রমাণিত হয়েছে যে অনেক মানুষই রয়েছে যারা রক্ত পান করতে ভালবাসে। এবং সেই রক্ত মানুষের না হলেও চলে। কোনও পশুর রক্ত পান করতেও তাদের অসুবিধা হয় না।

কাহিনির ড্রাকুলা রক্ত পান করে বেঁচে থাকার তাগিদে। কিন্তু, এই সব রক্তপায়ী মানুষের এমন ইচ্ছে একেবারেই শারীরিক বা মানসিক অসুস্থতার লক্ষণ। ‘হেল্‌থলাইন.কম’ নামে এক ওয়েবসাইটের নিউজলেটারে বলা হয়েছে যে, বেঁচে থাকার জন্য যারা রক্ত খায়, তাদের ‘স্যানগুইনারিয়ান’ বলা হয়। আর রক্ত খাওয়ার ইচ্ছেকে বলা হয় ‘রেইনফিল্ডস সিনড্রোম’। 

এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৩ সালে তুরস্কে এক ব্যক্তির খোঁজ পাওয়া গিয়েছিল, যিনি বলেছিলেন, তাঁর কাছে রক্ত পান করাটা শ্বাস নেওয়ার মতোই জরুরি। তিনি নিজের শরীরের বিভিন্ন অংশে রেজার চালিয়ে রক্ত সঞ্চয় করে তা পান করতেন।

ওই প্রতিবেদনে এক মহিলা সম্পর্কে বলা হয়েছে যে, তিনি নিজের মুড ঠিক রাখার জন্য প্রতি দিন এক লিটার করে শুয়োরের রক্ত খেতেন। প্রসঙ্গত, এখনও পর্যন্ত সঠিক ভাবে কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারেননি গবেষকরা, কেন এই রক্তপিপাসা পায় মানুষের। তবে, স্যানগুইনারিয়ান-দের মতে, এই তৃষ্ণা শরীরের তুলনায় মনেরই বেশি।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top