Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ , সময়- ১১:৪৯ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
অটলবিহারী বাজপেয়ীর অবস্থা সঙ্কটজনক আলোর গতিতে বাংলার আকাশ ছাড়িয়ে বহির্বিশ্বে বঙ্গবন্ধুর নাম গভীর শোক আর শ্রদ্ধায় জাতি স্মরণ করলো বঙ্গবন্ধুকে বাংলাদেশ সরকার গণগ্রেপ্তার চালাচ্ছে - এইচআরডব্লিউ : বিশ্লেষক প্রতিক্রিয়া বঙ্গবন্ধু হত্যায় জড়িত ছিল দেশি-বিদেশি আন্তর্জাতিক চক্র : সেলিম জাতীয় নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র চলছে : কামরুল নির্বাচনে বিশ্বাস করি, ভোটের লড়াই করে ক্ষমতায় যেতে চাই : মোহাম্মদ নাসিম কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলার ঘটনায় ৪৮ জন নিহত এখন পর্যন্ত ৪০ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু  বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম সারওয়ারকে শেষ বিদায় জানালেন বানারীপাড়াবাসী

বাজেটে কালো টাকা সাদা করার কোনও সুযোগ থাকছে না : অর্থমন্ত্রী


মোঃ ইব্রাহীম, নিজস্ব প্রতিবেদক

আপডেট সময়: ২৯ মে ২০১৮ ১২:৫৭ পিএম:
বাজেটে কালো টাকা সাদা করার কোনও সুযোগ থাকছে না : অর্থমন্ত্রী

আগামী ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে বাজেটে কালো টাকা সাদা করার কোনও সুযোগ থাকছে না। কারণ অতীতে এই ধরনের অনেক সুযোগ দেয়া হয়েছে কিন্তু তাতে কোনো সুফল পাওয়া যায়নি।

সোমবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে এক প্রাক বাজেট আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এসব কথা বলেন।বাংলাদেশ স্টাডি ট্রাস্ট-এর উদ্যোগে ‘স্বপ্ন পূরণের বাজেট: প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি’র রূপরেখা শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সংগঠনের সভাপতি ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

মুহিত বলেন, চলতি ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে বাজেট বাস্তবায়নের হার সন্তোষজনক নয়। বাজেট বাস্তবায়নের হার কমে যাওয়া সরকারের জন্য একটা ব্যাড সিগনাল। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য আগামী অর্থবছর থেকে বাজেট বাস্তবায়ন যাতে সহজ হয় সেজন্য বিশেষ দিক-নির্দেশনা থাকবে। যাতে বাজেট অনুমোদনের পর পরই অর্থ খরচ করা যায়।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে দক্ষ জনবলের যথেষ্ট অভাব রয়েছে। ২০১১ সাল থেকে বাজেটে দক্ষ জনবল সৃষ্টিতে নানা পদক্ষেপে নেয়া হচ্ছে। এবারের বাজেটে দক্ষ জনবল সৃষ্টিতে বিশেষ পদক্ষেপ থাকছে। আগামী বাজেটে অবহেলিত জনগোষ্ঠী এবং সামাজিক সুরক্ষায় বিশেষ বরাদ্দ দেয়া হবে।

আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, ২০১২ সাল থেকে বাজেট বাস্তবায়নের ক্রমান্বয়ে কমছে। ২০১২-১৩ অর্থবছরে বাজেট বাস্তবায়নের হার ৯৩ শতাংশ ছিল। গত কয়েকবছরে বাজেট বাস্তবায়নের হার ধারাবাহিকভাবে কমতে কমতে এখন ৮০ শতাংশের নিচে নেমে এসেছে। এটি খুবই অপ্রত্যাশিত ও দুঃখজনক।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ স্টাডি ট্রাস্টের সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ডা. মামুন আল মাহতাবের উপস্থাপনায় বৈঠকে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক অর্থ উপদেষ্টা ড. এ বি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম, পিকেএসএফ’র চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জামান, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সদস্য ড. শামসুল আলম, পলিসি রিসার্চ ইন্সটিটিউটের চেয়ারম্যান ড. জাহিদ সাত্তার প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top