Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ , সময়- ২:০০ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
ড. কামাল হোসেনের গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় মামলা সারা দেশে ব্যাপক শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় বিজয় দিবস উদযাপন বিএনপি-ঐক্যফ্রন্টকে ভোট না দেয়ার আহ্বান খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে সংগ্রাম চলছে, চলবে : ফখরুল  ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভোটারদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী বিজয় দিবসে একাত্তরের বীর শহীদদের প্রতি প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা গণমানুষের শেখ মুজিব, ইতিহাসের মহানায়ক বিজয় দিবসের বীর শ্রেষ্ঠরা বীরত্বের এক অবিস্মরণীয় দিন, মহান বিজয় দিবস আজ নির্বাচনে নিরাপত্তার ছক চুড়ান্ত করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী

আর্জেন্টিনার পরবর্তী কোচ কে, আমি কী অযোগ্য ? ক্ষুব্ধ মারাদোনা 


ডেস্ক রিপোর্ট

আপডেট সময়: ১০ আগস্ট ২০১৮ ৯:৪৯ পিএম:
আর্জেন্টিনার পরবর্তী কোচ কে, আমি কী অযোগ্য ?  ক্ষুব্ধ মারাদোনা 

আর্জেন্টিনার পরবর্তী কোচ কে! তা নিয়ে বিস্তর জল্পনা। বিস্তর আলোচনা চারপাশে। একের পর এখ নামে আলোচনায় আসছে। কিন্তু একবারও তাঁর নাম বলছেন না কেউ। তিনি আর্জেন্টিনার সর্বকালের সেরা ফুটবলারদের একজন। দেশকে ১৯৮৬ বিশ্বকাপ জিতিয়েছেন অধিনায়ক হিসেবে। এমন একজন ফুটবল কিংবদন্তিকে দেশের পরবর্তী কোচ হিসাবে আমল দিচ্ছে না আর্জেন্টিনার সংবাদমাধ্যম।

কেন তাঁকে পাত্তা দিচ্ছে না সেদেশের মিডিয়া? এই নিয়েই মারাদোনা ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। সোশ্যাল সাইটে দীর্ঘ এক পোস্টে তিনি লিখেছেন, 'জাতীয় দলের প্রতি পূর্ণ সম্মান রেখে বলছি, কিছু সাংবাদিক যে আমাকে আর্জেন্টিনার সম্ভাব্য কোচের মধ্যে রাখে না, এতে আমি খুব বিরক্ত। শাভো ফাকসের (আর্জেন্টিনার স্বনামধন্য ক্রীড়া সাংবাদিক) কথাই ধরুন। উনি তো কখনোই আমার নাম সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে রাখছেন না। আমি ওনার সাংবাদিকতা কেরিয়ারের শুরু থেকে ওনাকে চিনি। তখন আমি খেলি। উনি তখন আমাকে আমল দিতেন। আর আজ এমন ভান করছেন যেন আমাকে চেনেনই না।

২০১০ বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে দলকে নিয়ে গিয়েছিলেন কোনওক্রমে। তার পর কোয়ার্টার ফাইনালে জার্মানির কাছে আর্জেন্টিনা হজম করেছিল ৪ গোল! অথচ সেটাই ছিল লিওনেল মেসির সেরা সুযোগ। মেসি তখন কেরিয়ারের সবচেয়ে সেরা সময় কাটাচ্ছিলেন। আর্জেন্টিনা অবশ্য বিশ্বকাপে ভালোই খেলছিল। গ্রুপ পর্বে সর্বোচ্চ ৭ গোল করেছিল। দ্বিতীয় রাউন্ডে মেক্সিকোকে দিয়েছিল ৩ গোল। কিন্তু কঠিন প্রতিপক্ষের সামনে পড়তেই মারাদোনার আর্জেন্টিনা মুখ থুবরে পড়েছিল।

সেবার মারাদোনা নিজেই জাতীয় দলের পদ থেকে সরে যান। মারাদোনার স্কোয়াড নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। হুয়ান রোমান রিকেলমেকে বিশ্বকাপ দলে নিতে না-পারা, বিশ্বকাপের মধ্যেই ম্যানেজার কার্লোস বিলার্দোর সঙ্গে ঝামেলা, এসব ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। মারাদোনা অবশ্য এখন বলছেন, ''একবার ব্যর্থ হওয়ার পরও অন্য অনেক কোচকে নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। কিন্তু আমাকে কেউ আমল দিচ্ছে না।'' সরাসরি নাম না বললেও হোসে পেকারম্যানের দিকে সম্ভবত ইঙ্গিত করেছেন তিনি। 

কোচ মারাদোনার পরিসংখ্যান কিন্তু একেবারেই ভাল নয়। আর্জেন্টিনা জাতীয় দল ছাড়াও চারটি ক্লাবের কোচ ছিলেন তিনি। কোথাও বেশিদিন টেকেননি। সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর ক্লাব আল ওয়াসল থেকে এক বছরের মাথায় ছাঁটাই হয়েছিলেন ২০১২-তে। গত বছর আবার আমিরাতের দ্বিতীয় বিভাগের ক্লাব আল ফুজাইরার দায়িত্ব নেন। কথা ছিল, দলকে প্রথম বিভাগে তুলে আনতে হবে। পারেননি। ফলে আবারও ছাঁটাই।

মারাদোনা আপাতত বেলারুশের ক্লাব ডায়নামো ব্রেস্তের চেয়ারম্যান হিসেবে তিন বছরের জন্য চুক্তিবদ্ধ। তবে তিনি আবার আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের দায়িত্ব চান। এমনকি বিনা বেতনে হলেও ভালোবাসা থেকে কাজটা করতে রাজি আছেন বলে কদিন আগে জানিয়েছিলেন।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top