Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮ , সময়- ৩:৫৭ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বি, জনগণ হৃদয় দিয়ে ভালোবাসে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী | প্রজন্মকণ্ঠ মানুষের ভিড়ের ওপর দিয়ে চলে গেল ট্রেন, ৫০ জন নিহত | প্রজন্মকণ্ঠ তরুণী ও কম বয়সী রোহিঙ্গা মেয়েরা পাচারের শিকার হচ্ছে : জাতিসংঘ যারা বহিষ্কারের ঘোষণা দিয়েছেন তারা বিকল্পধারার কেউ নন : মাহী বি চৌধুরী  আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের স্বাধীনতা এখনও পুরোপুরি অর্জন করতে পারিনি : রাষ্ট্রপ্রতি সর্বত্র মানুষের মঙ্গলের সুযোগ করে দিতে শেখ হাসিনার সরকার কাজ করছে : অর্থমন্ত্রী  সংস্কৃতি অঙ্গনে কালো ছায়া নেমে এলো | প্রজন্মকণ্ঠ চার দিনের সরকারি সফর শেষে দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী আজ | প্রজন্মকণ্ঠ পবিত্র ওমরাহ পালন করেছেন প্রধানমন্ত্রী, দেশবাসীর জন্য দোয়া প্রার্থনা | প্রজন্মকণ্ঠ গিটারের জাদুকরকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে ভক্তদের কান্না আর ফুলেল শুভেচ্ছা

রোহিঙ্গা ইস্যু : আইসিসি-কে কোনের ধরণের সহযোগিতা করবে না মিয়ানমার


ডেস্ক রিপোর্ট

আপডেট সময়: ১১ আগস্ট ২০১৮ ১:১১ এএম:
রোহিঙ্গা ইস্যু : আইসিসি-কে কোনের ধরণের সহযোগিতা করবে না মিয়ানমার

রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিরুদ্ধে অপরাধ তদন্তে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত বা আইসিসি-কে কোনের ধরণের সহযোগিতা করবে না মিয়ানমার।গতকাল (বৃহস্পতিবার) মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সুচির কার্যালয় থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে এ কথা বলা হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা পরিচালনার কোনো এখতিয়ার আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) নেই।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, মিয়ানমার এ সংক্রান্ত কোনো সনদে সই করে নি। রোম সনদের ওপর ভিত্তি করে হেগের আইসিসি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। গণহত্যা, মানবতাবিরোধী অপরাধ ও যুদ্ধাপরাধের জন্য ব্যক্তির বিচার করার এখতিয়ার রয়েছে আইসিসির। সই না করার কারণে মিয়ানমার রোম সনদের কোনো পক্ষ না। তাই নেপিদো’র বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নেওয়ার এখতিয়ার আইসিসি’র নেই।

মামলা পরিচালনায় আইসিসির এখতিয়ার নিয়ে মিয়ানমারের মতামত জানতে চাওয়ার পর দেশটি সহযোগিতা না করার ঘোষণা দিল।

আইসিসির প্রি-ট্রায়াল চেম্বার মিয়ানমারের উপযুক্ত কর্তৃপক্ষকে ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে প্রকাশ্যে বা গোপনীয়ভাবে তিনটি বিষয়ে পর্যবেক্ষণ জমা দিতে আহ্বান জানিয়েছিল। এর জবাবে মিয়ানমার আইসিসির সাথে কাজ করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আরও বলেছে, আদালতের বিচার প্রক্রিয়ার ‘ন্যায্যতা এবং স্বচ্ছতা' নিয়েও তাদের উদ্বেগ রয়েছে। দেশটি আরও দাবি করেছে, সদস্য না হওয়া সত্ত্বেও আইসিসি মিয়ানমারের বিষয়ে তদন্ত শুরু করলে ভবিষ্যতের জন্য খারাপ দৃষ্টান্ত তৈরি হবে।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top