Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ , সময়- ৭:৫১ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
বিএনপির দেয়া তালিকার অধিকাংশ মামলা ২০১৪-১৫’র সহিংসতার : ডিএমপি  সায়মা ওয়াজেদকে অভিনন্দন মন্ত্রিসভার আ'লীগে এত মনোনয়নপ্রত্যাশী কেন ? শরিকদের জন্য ৭০টি আসন ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনে দুর্নীতিবাজদের নির্বাচিত না করতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান : দুদক চেয়ারম্যান সাজাপ্রাপ্ত খালেদার যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা নিতে হাইকোর্টের নির্দেশ  খাশোগি হত্যা : লাশ টুকরো করার ছবি ফাঁস ! ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ পদকের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন আয়কর মেলার শেষ দিন আজ দুর্নীতিসহ ১১ সূচকে রেড জোনে বাংলাদেশ : এমসিসি 

হাসান মতিউর রহমান-এর লেখা এ গানের নেপথ্যকথা

‘যদি রাত পোহালে শোনা যেতো- বঙ্গবন্ধু মরে নাই’


নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রজন্মকণ্ঠ

আপডেট সময়: ১৪ আগস্ট ২০১৮ ৯:২১ পিএম:
‘যদি রাত পোহালে শোনা যেতো- বঙ্গবন্ধু মরে নাই’

হাসান মতিউর রহমান একজন নেপথ্যের মানুষ। তার হাতে অনেক ছাইচাপা প্রতিভা পেয়েছে ঈর্ষনীয় তারকাখ্যাতি। তিনি বাংলা গানের ইতিহাসের অনন্য এক যুগস্রষ্টা। বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বাধিক বিক্রিত অ্যালবাম ‘আমি বন্দী কারাগারে’-এর সুরকার ও প্রযোজক হাসান মতিউর রহমান।

আশির দশকে হিন্দি আর উর্দু গজলের প্রভাবে দেশীয় গান যখন নাকানি-চুবানি খাচ্ছিল, সেসময়ে বাংলার লোকগানে শ্রোতাদের ফেরানোর আন্দোলনের অন্যতম নায়ক হাসান মতিউর রহমান। তার হাতে সৃষ্টি হয়েছে অসংখ্য কালজয়ী গান। 
 
‘আমি বন্দী কারাগারে’, ‘আমার সোনা বন্ধুরে’, ‘আল্লায় করবে তোমার বিচার’, ‘কান্দিসনারে বিন্দিয়া’ এবং ‘আমি কেমন করে পত্র লিখিরে বন্ধু’–এমনি অগণিত জনপ্রিয় ও কালজয়ী গানের লেখক ও সুরস্রষ্টা হাসান মতিউর রহমান। প্রতিটি সৃষ্টির সাথেই জড়িয়ে থাকে নানান ঘটনা। সব গানের সাথেই তেমনি স্মৃতিঘেরা অনেক ঘটনা এখনো তাকে আপ্লুত করে। 

মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে তার লেখা ‘যদি রাত পোহালে শোনা যেতো- বঙ্গবন্ধু মরে নাই’–এ গানটিরও গীতিকার হাসান মতিউর রহমান। জাতির জনকের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা-ভালোবাসা থেকে তিনি লিখেছিলেন হৃদস্পর্শী এ গান। প্রতি বছর রাষ্ট্রীয় নানা দিবস ছাড়াও পুরো শোকের মাসে বিশেষভাবে বাজানো হয়ে থাকে গানটি। 

কিন্তু কিভাবে সৃষ্টি হলো কালের সাক্ষী এই গান, সেটি অনেকেরই অজানা। আগামীকাল ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবসকে ঘিরে অনন্য এ গানের নেপথ্যের কথা জানিয়েছেন নন্দিত গীতিকার-সুরকার হাসান মতিউর রহমান। তিনি বলেন, ‘সম্ভবত ১৯৯০ সালের কথা। আজকের প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের বাহিরে কোনো একটি দেশে আওয়ামী লীগের সম্মেলনে যোগ দেওয়ার কথা। সেখানে পরিবেশনের জন্য তখন মলয় কুমার গাঙ্গুলিকে দুটি গান করতে বলা হয়েছিল। এর একটি বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে এবং অপরটি জননেত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে। তখন মলয় কুমার গাঙ্গুলি আমাকে বিস্তারিত জানিয়ে দুটি গানই লেখার জন্য বললেন। সময় মাত্র দুদিন।

আমি তো শুনে অবাক। বললাম বঙ্গবন্ধুর মতো হিমালয়সম ব্যক্তিত্বকে নিয়ে গান লেখা তো সহজ বিষয় নয়, এটি কি আমি পারবো? তার পরও আমাকে দায়িত্ব দেওয়া হলো। সেদিন রাতে ১০টার দিকে লিখতে বসলাম। ভাবতে ভাবতে পুরো রাত কেটে গেল। কিন্তু একটি লাইনও গুছিয়ে লিখতে পারলাম না। এরই মধ্যে ফজরের আজান হয়ে গেছে, ঠিক রাত পোহাবার অবস্থা। আমি হঠাৎ ভাবলাম, আচ্ছা এমন যদি হয়- ‘‘যদি রাত পোহালে শোনা যেতো- বঙ্গবন্ধু মরে নাই, তবে বিশ্ব পেতো এক মহান নেতা -আমরা পেতাম ফিরে জাতির পিতা’’। এভাবেই রচিত হলো গানটি।’ অসাধারণ কথাকারুতে যা সৃষ্টি হয়েছে কালের সাক্ষী হয়ে।

তিনি জানান, গানটি শোনানোর পর সবাই বেশ প্রশংসা করলো। একটি শব্দও কাটতে হয়নি। ওই অনুষ্ঠানের জন্য শেখ হাসিনাকে নিয়ে তার লেখা গানটি ছিল- ‘আমি বোকার মতো কারো কথায় যখন-তখন নাচিনা, শেখ মুজিবের পরে এখন নেত্রী আমার হাসিনা’।  

 


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top