Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮ , সময়- ৪:০৫ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
রাখাইনে এখনো রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ পরিবেশ তৈরি হয়নি : রিচার্ড অলব্রাইট নির্বাচনী আচরণবিধি মানছেন না সম্ভাব্য প্রার্থীরা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারই 'নির্বাচনকালীন সরকার'   মঙ্গলবার পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা নিবে আওয়ামী লীগ  আন্তর্জাতিক পুরস্কারে মনোনীত শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী প্রথম দিনে ১৩২৬টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি করেছে বিএনপি  পাঁচ বিভাগের ৭টি আসনে একক প্রার্থী পাচ্ছে আওয়ামী লীগ সিইসিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বদরুদ্দোজা চৌধুরী ২৩ নয়, এখন ৩০  ৩০০ সংসদীয় আসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগের নির্দেশনা দিয়েছেন ইসি 

বগুড়ায় জেএমবির উত্তর অঞ্চলের প্রধান সহ আটক ৫


খাজা রতন 

আপডেট সময়: ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১১:২৩ এএম:
বগুড়ায় জেএমবির উত্তর অঞ্চলের প্রধান সহ আটক ৫

পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স ইনটেলিজেন্স শাখা ও বগুড়া জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের যৌথ অভিযানে জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ পুরাতন জেএমবির রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের সামরিক প্রধানসহ ৫ জন আটক হল বগুড়ায়। গতকাল মঙ্গলবার গভীর রাতে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার মীর্জাপুর টু রানীরহাট সড়কের মোড়ে সুলতানের দোকানের সামনে থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় বিদেশী 7.65/9mm পিস্তল ৬ রাউন্ড গুলি ধারালো বার্মিজ ছোরা ও এক জোড়া হ্যান্ডকাপ। ধারনা করা হচ্ছে , কোন নাশকতা বা বড় অপারেশনের প্রস্তুতির সময় তারা আটক হয়েছে । 

গ্রেফতারের পর আজ বুধবার বেলা ১২টায় নিজ অফিসে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বগুড়ার পুলিশ সুপার মো: আলী আশরাফু ভূঞা বিপিএম লিখিত বক্তব্যে জানান, গোপন সুত্রে গোয়ান্দাদের কাছে তথ্য ছিল গাজীপুরে জেএমবির শুরা সদস্য ও পুরাতন জেএমবির খোরশেদ মাস্টারের সঙ্গে বৈঠক শেষে নতুন পরিকল্পনা নিয়ে উত্তরাঞ্চলে ফিরছিলো কয়েকজন জেএমবি সদস্য। এই তথ্যের ভিত্তিতে গত মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে শেরপুর উপজেলার মির্জাপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয় রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের সামরিক প্রধান শহিদুল্লাহ, রাজশাহী বিভাগের সামরিক প্রধান বুলবুল এবং সামরিক সদস্য মাসুদ রানা, নবমুসলিম আতিকুর রহমান ও মিজানুর রহমানকে। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে জামালপুর জেলার বড়ই কুড়া গ্রামের মৃত লোকমান আলীর ছেলে মোঃ শহিদুল্লাহ নিজের সাংগঠনিক পদবী রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের আছির ( কারাবন্দী ) ,রাজশাহীর বেলপুকুর এলাকার আকবর আলীর ছেলে বুলবুল তার সাংগঠনিক রাজশাহীর ইছাবা ( সামরি ) প্রধাণ এবং একই এলাকার মোঃ একরামুলের ছেলে মাসুদ রানা ইছাবা’র সদস্য বলে পুলিশকে জানিয়েছেন । 

গ্রেফতাকৃত অন্য দুজনের মধ্যে রাজশাহীর চারঘাটের মৃত আবু তালেবের ছেলে মিজান পেশায় দর্জি ও সে ইছাবা (সামরিক) শাখার সদস্য বলে জানিয়েছে । অন্যদিকে আরেক ইছাবা সদস্য রাজশাহীর চারঘাটা এলাকার শ্রী উৎপল হাজরার ছেলে সৈকত নিজেকে ধর্মান্তরিত মুসলিম দাবী করে নতুন নাম আতিক ও সাংগঠনিক নাম সৈকত ওরফে সামিত বলে জানিয়েছে । দর্জি মিজান ছাড়া বাকি ৪ জনই উচ্চশিক্ষিত এবং ধর্মান্তরিত ইছাবা সদস্য আতিক ওরফে সৈকত ওরফে সামিত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গনযোগাযোগ বিভাগের ছাত্র। পুলিশের একটি সুত্র বলেছে , পুরাতন জেএমবির সদস্যদের বেশির ভাগই রিক্রুটই অল্পশিক্ষিত হলেও ইদানীং উচ্চশিক্ষিতদেরও রিক্রুট করা হচ্ছে । এছাড়া প্রতিবেশি ভারতের মত এখানেই হিন্দু যুবকদেরও ধর্মান্তরিত হয়ে জঙ্গী সংগঠনে যোগ দেওয়ার লক্ষ্যণীয় হয়ে উঠছে । এরা গত বছরের মে মাসে রাজশাহীর রহমান জুট মিলের সাড়ে ১৭ লাখ টাকা লুট মামলার আসামী ।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top