Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ , সময়- ১০:৫৭ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
আয়কর মেলার শেষ দিন আজ দুর্নীতিসহ ১১ সূচকে রেড জোনে বাংলাদেশ : এমসিসি  চিকিৎসা বিষয়ে খালেদা জিয়ার রিটের আদেশ আজ  নাজমুল হুদাকে ৪৫ দিনের মধ্যে আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ  নির্বাচনকালীন সম্ভাব্য নাশকতা মোকাবিলায় সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার  একজন শিশুকে পিইসি পরীক্ষার জন্য যেভাবে পরিশ্রম করতে হয়, সত্যিই অমানবিক : সমাজকল্যাণমন্ত্রী নির্বাচনকে সামনে রেখে আদর্শগত নয়, কৌশলগত জোট করছে আওয়ামী লীগ : সাধারণ সম্পাদক থার্টিফার্স্ট উদযাপন নিষিদ্ধ : স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের স্বার্থে পেশাদারিত্ব বজায় রাখবে সেনাবাহিনী  মহাজোটের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নির্বাচনে যাওয়ার শিগগিরই আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসছে 

তৃতীয় বারের জন্য বৈঠকে বসছেন দুই কোরিয়ার প্রধান


প্রজন্মকণ্ঠ অনলাইন রিপোর্ট

আপডেট সময়: ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ৬:২৩ পিএম:
তৃতীয় বারের জন্য বৈঠকে বসছেন দুই কোরিয়ার প্রধান

তৃতীয় বারের জন্য বৈঠকে বসছেন উত্তর কোরিয়ার প্রধান কিম জং উন ও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন৷ চলতি মাসের ১৭-২০ তারিখ পর্যন্ত উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে চলবে আন্তর্কোরিয় সম্মেলন৷ এই সম্মেলনের ফাঁকেই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসতে চলেছেন তাঁরা৷

সংবাদ সংস্থা ইয়ুনহ্যাপ জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার তরফে এই খবরের সত্যতা স্বীকার করা হয়েছে৷ দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের বিশেষ দূত চাং ইউ ইয়ং বুধবার পিয়ংইয়ং থেকে ফিরে এখবর জানিয়েছেন৷ সাংবাদিক সম্মেলন করে তিনি দুই রাষ্ট্রনেতার বৈঠকের কথা প্রকাশ্যে নিয়ে আসেন৷
 
পরমাণু অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণের উদ্দেশ্যেই এই বৈঠক বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা৷ বৈঠক উপলক্ষেই উত্তর কোরিয়া সফর করবেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট৷ প্রসঙ্গত, এর আগে একই উদ্দেশ্যে দুই বার বৈঠকে মিলিত হয়েছেন তাঁরা।

এই বৈঠকের প্রস্তুতি হিসেবে দুই দেশের উচ্চপদস্থ সচিবরা আগে বৈঠকে বসবেন বলে জানা গিয়েছে৷ ইতিমধ্যেই চাং ইউ ইয়ংয়ের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দল পিয়ংইয়ংয়ের উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে গিয়েছে৷ এর আগে চলতি বছরের ২৭ এপ্রিল প্রথমবার দুই কোরিয়ার সীমান্ত গ্রাম পানমুনজমে বৈঠকে বসেন দুই কোরিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানরা৷ সেই বৈঠকের পরই পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের ঘোষণা করেন কিম জন৷

এরপর গত জুনে সিঙ্গাপুরে এক ঐতিহাসিক বৈঠকে পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ে একটি অলিখিত চুক্তিতে পৌঁছন কিম ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু গত মাসে উত্তর কোরিয়ায় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সফর বাতিলের পর থেকে উত্তাপ বাড়তে থাকে৷ মার্কিন যুক্তরাষ্টের সঙ্গে বৈঠকের পরেও বরফ যে খুব বেশি গলেনি, তার প্রমাণ মেলে৷ এরপর ফের বৈঠকে বসেন দুই কোরিয়ার নেতা৷ ২০১৮ সালের ২৬ মে এই বৈঠক হয়৷

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মূল অভিযোগ উত্তর কোরিয়ার পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে৷ তবে পালটা উত্তর দেন কিমও৷ দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যস্থতায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বৈঠক হলেও আরেকটি বৈঠকের প্রয়োজন ছিল উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে৷ সেই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকটিই হতে চলেছে সেপ্টেম্বরের ১৭-২০ তারিখের মধ্যে৷


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top