Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, সোমবার, ২২ অক্টোবর ২০১৮ , সময়- ৬:১১ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
এরশাদের বিরুদ্ধে করা মঞ্জুর হত্যা মামলার প্রতিবেদন দাখিল, আগামী ১৮ নভেম্বর নির্বাচন সামনে রেখে শিগগিরই সারাদেশে অবৈধ অস্ত্রের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান শুরু জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে ২৮ রানে জয় পেলো বাংলাদেশ  সাম্প্রতিক সৌদি আরব সফর : প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন, আগামীকাল গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটির জন্য চালু হচ্ছে ঢাকা-কালিয়াকৈর ট্রেন সার্ভিস শিগগিরই ছোট হচ্ছে মন্ত্রিসভা আপনার কথায় অস্ট্রেলিয়ায় থাকা আমার মেয়েও লজ্জিত : মঈনুলকে ফোনে মির্জা ফখরুল  আমরা আর দুর্নীতিতে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ান হতে চাইনা, সমৃদ্ধ উন্নত বাংলাদেশ চাই : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  সিলেটে সমাবেশ করার অনুমতি পেয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট  ইমরুলের সেঞ্চুরিতে ৮ উইকেট হারিয়ে টাইগারদের সংগ্রহ ২৭১ রান

বাংলাদেশে এলপিজি টার্মিনাল নির্মাণ করবে আমিরাত, আলোচনা চলতি মাসেই 


প্রজন্মকণ্ঠ অনলাইন রিপোর্ট

আপডেট সময়: ৩ অক্টোবর ২০১৮ ৪:৩০ পিএম:
বাংলাদেশে এলপিজি টার্মিনাল নির্মাণ করবে আমিরাত, আলোচনা চলতি মাসেই 

তরল পেট্রোলিয়াম গ্যাস টার্মিনাল নির্মাণের বিষয়ে দুবাইভিত্তিক আমিরাত ন্যাশনাল অয়েল কোম্পানির সঙ্গে আলোচনা করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের পরিচালক সৈয়দ মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক বলেন, যৌথ উদ্যোগে এলপিজি টার্মিনাল নির্মাণে আমিরাতের জাতীয় তেল কোম্পানি ইএনওসি আমাদের কাছে প্রস্তাব পাঠিয়েছে।

তিনি বলেন, এ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করতে আমাদের ঢাকার অফিসে তাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছি। আগামী ১১ অক্টোবর তাদের আসার কথা রয়েছে।

মোজাম্মেল হক বলেন, বৈঠকে টার্মিনালের সক্ষমতা ও অন্যান্য বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে। বর্তমানে বাংলাদেশে ওমান ও কাতার থেকে অধিকাংশ এলপিজি আমদানি করে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

‘এখন প্রতি টন এলপিজির পরিবহনে খরচ হচ্ছে ১০০ ডলার। কিন্তু যখন টার্মিনালটি নির্মাণ হয়ে যাবে, বড় বড় জাহাজ নোঙর করবে, তখন এ খরচ নেমে ৩০ ডলারে পৌঁছাবে।

‘ফলে খুচরা গ্রাহকরা ১০ শতাংশ কম দামেই এলপিজি কিনতে পারবেন।’ দেশের প্রথম নির্মিতব্য গভীর সমুদ্রবন্দরের কাছে মহেশখালী দ্বীপের মাতারবাড়িতে ওই টার্মিনাল নির্মিত হতে পারে বলে এ কর্মকর্তা জানান।

প্রাকৃতিক গ্যাসের সরবরাহ ঘাটতি মোকাবেলায় সরকার বাসাবাড়িতে এলপিজির ব্যবহার উৎসাহিত করে আসছে। রান্না ও পরিবহনের পাশাপাশি পেট্রোকেমিক্যাল কারখানাতেও এলপিজি ব্যবহার হয়।

বিপিসির এ কর্মকর্তা বলেন, বাংলাদেশে এখন ১০ লাখ টন এলপিজির চাহিদার বিপরীতে ৬ লাখ টনের সরবরাহ আছে। ‘২০২২ সাল নাগাদ এ চাহিদা ২০ লাখ টনে পৌঁছাবে। কারণ তখন বাংলাদেশি গৃহস্থালির রান্নার গ্যাসের একমাত্র উৎস হবে এলপিজি।’

বাংলাদেশে নিযুক্ত সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূত ড. সাইদ বিন হাযার আলশেহি গত বছর নভেম্বরে বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের দেখা করে জ্বালানি খাতে বিনিয়োগ করতে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

ইএনওসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফ আল ফায়সাল তখন বলেন, ইএনওসি বাংলাদেশের জ্বালানি খাতে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী।

আমিরাত ন্যাশনাল অয়েল কোম্পানির অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে এলএনজি ও জেট ফিউয়েল সরবরাহ, রিফাইনারি স্থাপন, এফএসআরইউ ও স্থলভিত্তিক টার্মিনাল নির্মাণ করতে ইচ্ছা প্রকাশ করেন তিনি।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top