Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারী ২০১৯ , সময়- ৮:৫০ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
১০টি অঞ্চলে পাঁচ ধাপে অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন আওয়ামী লীগ দেশ চালাতে পারবে না : রব ৫ কোম্পানির পানি মানহীন : বিএসটিআই পরিকাঠামো উন্নয়নে বিপুল অর্থ ঋণ দিচ্ছে চিন বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছেন এরশাদ  মুন্সিগঞ্জের ট্রলারডুবি যে সত্যগুলো উন্মোচন করল রোহিঙ্গাদের কথা শুনলেন রাষ্ট্রসংঘের প্রতিনিধিরা সম্ভাবনাময় অন্যান্য রফতানি পণ্যে প্রণোদনা : বাণিজ্যমন্ত্রী আওয়ামী লীগের বিজয় উৎসব জনগণের সঙ্গে মশকরা কোনো অন্যায় সহ্য করা হবে না : মন্ত্রিসভায় শেখ হাসিনা

শহীদ মিনারে আইয়ুব বাচ্চুকে ভক্ত, অনুরাগীসহ সর্বস্তরের মানুষের শেষ শ্রদ্ধা


প্রজন্মকণ্ঠ অনলাইন রিপোর্ট

আপডেট সময়: ১৯ অক্টোবর ২০১৮ ১২:৫৮ পিএম:
শহীদ মিনারে আইয়ুব বাচ্চুকে ভক্ত, অনুরাগীসহ সর্বস্তরের মানুষের শেষ শ্রদ্ধা

ব্যান্ড সংগীতের কিংবদন্তি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর প্রতি সর্বসাধারণের শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য তার মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে নেওয়া হয়েছে। আইয়ুব বাচ্চুর প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন তার ভক্ত, অনুরাগীসহ সর্বস্তরের মানুষ।

শুক্রবার (১৯অক্টোবর) সকালে এই শিল্পীর মরদেহ নেওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে; শ্রদ্ধা জানানোর পর জুমার নামাজ শেষে জাতীয় ঈদগাহে হবে জানাজা। পরে আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে মগবাজারে তার নিজের স্টুডিও এবি কিচেনে। এ শিল্পীর দ্বিতীয় জানাজা হবে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে।

দ্বিতীয় জানাজা শেষে তার মরদেহ ফের হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হবে। অস্ট্রেলিয়া ও কানাডা থেকে আইয়ুব বাচ্চুর মেয়ে ও ছেলে দেশের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। তারা এলে শনিবার বাদ জোহর চট্টগ্রাম মহানগরের মাদারবাড়ী জামে মসজিদে তৃতীয় জানাজা শেষে মায়ের কবরের পাশে আইয়ুব বাচ্চুকে সমাহিত করা হবে।

বৃহস্পতিবার সকালে হার্ট অ্যাটাকে মারা যান আইয়ুব বাচ্চু। তার বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর। ব্যান্ড দল এলআরবির লিড গিটারিস্ট ও ভোকালিস্ট আইয়ুব বাচ্চু ছিলেন একাধারে গীতিকার, সুরকার ও প্লেব্যাক শিল্পী। চার দশক বাংলাদেশের তরুণদের গিটারের মূর্ছনায় মাতিয়ে রেখেছিলেন তিনি। গিটার বাদনে তার খ্যাতি ছিল পুরো ভারতীয় উপমহাদেশেই।

আঙুল দিয়ে গিটারের তার স্পর্শ করলেই যেন সুরের ইন্দ্রজাল ছড়িয়ে পড়তো চারপাশে। গলা ছেড়ে তিনি গাইতেন ‘হাসতে দেখো গাইতে দেখো, কিংবা আরও বেশি কাঁদালে উড়াল দেবো আকাশে, সত্যিই তো এখন আকাশে চলে গেছেন কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু। গানে গানে তো তিনি আকাশের তারা গোনার ইচ্ছের কথা জানিয়েছিলেন। তার প্রিয় সেই রূপালি গিটার ঠিকই আছে। শুধু নেই বাংলাদেশের ব্যান্ড সঙ্গীতের অন্যতম নক্ষত্র আইয়ুব বাচ্চু।

শিল্পীর পারিবারিক একটি সূত্র জানায়, অনেকদিন ধরেই আইয়ুব বাচ্চু হৃদরোগে ভুগছিলেন। কিন্তু সেটা তিনি মিডিয়াকে জানাতে চাননি। এ প্রসঙ্গে ডা. নাজিম বলেন, তার হার্টের কার্যক্ষমতা ছিলো ৩০ শতাংশ। সর্বশেষ তিনি গত সপ্তাহে স্কয়ার হাসপাতালেই চিকিৎসা নিয়েছেন। এর আগে ২০০৯ সালে তিনি হার্টে রিং পরিয়েছিলেন। আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুর খবর শোনার পরপরই শিল্পীর দীর্ঘদিনের সহকর্মী ও সহশিল্পীরা স্কয়ার হাসপাতালে ছুটে যান। অনেকেরই চোখ তখন ছলছল করছিল। কেউ কেউ কান্নায় ভেঙে পড়েন।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top