Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ , সময়- ৩:৪২ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় গণসংযোগে মির্জা ফখরুল  বিতর্কিত সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ ও তাঁর রাজনীতি  প্রমাণিত হলো বিএনপি সন্ত্রাসী দল : কাদের  বিবাহবার্ষিকীতে দোয়া চাইলেন ক্রিকেট সুপারস্টার সাকিব টুঙ্গিপাড়া থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করলেন সভানেত্রী শেখ হাসিনা  খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা নিয়ে রিটের আদেশ আগামীকাল  মনোনয়নপত্র ফিরে পাচ্ছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিরো আলম নির্বাচনী প্রচার শুরু করবেন শেখ হাসিনা, ১২ ডিসেম্বর সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্য ২০১৫ থেকে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট ২০৩০

শরিকদের জন্য ৭০টি আসন ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা


প্রজন্মকণ্ঠ অনলাইন রিপোর্ট

আপডেট সময়: ১৯ নভেম্বর ২০১৮ ৪:৫৪ পিএম:
শরিকদের জন্য ৭০টি আসন ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আসনরফা চূড়ান্ত করে ফেলল আওয়ামী লীগ ৷ বিএনপিকে কোণঠাসা করতে ও জোটের মনোবল বাড়াতে শরিক দলগুলির জন্য ৭০টি আসন ছাড়ার কথা ঘোষণা করল আওয়ামী লীগ ৷

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, জোটসঙ্গীদের জন্য ৬৫ থেকে ৭০টি আসন ছেড়ে দেওয়া হতে পারে। রবিবার সচিবালয়ে তিনি জানান, শরিক দলগুলির সঙ্গে আলোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷ জাতীয় পার্টি, ওয়ার্কার্স পার্টি, তরিকত ফেডারেশন, যুক্তফ্রন্টের বিকল্প ধারা এবং কিছু ইসলামপন্থী দল আওয়ামী লীগের জোটসঙ্গী। তাদের কথা মাথায় রেখে এবং প্রার্থীদের গ্রহণযোগ্যতা বিচার করে ৭০টি আসন ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ এদিকে রবিবার থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নেওয়া শুরু করেছে খালেদা শিবির৷ ইতিমধ্যেই রংপুর বিভাগে প্রার্থী চূড়ান্ত করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে বিএনপি-র সংসদীয় বোর্ড। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানও লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই সাক্ষাৎকারে যোগ দেন।

এদিকে নির্বাচন ঘিরে ক্রমেই বাংলাদেশে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে পরস্থিতি৷ তুঙ্গে পৌঁছেছে শাসক-বিরোধী তরজা৷ প্রথম দিকে নির্বাচন বয়কট করার ডাক দিয়েও ভোটের লড়াইয়ে নেমেছে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি৷ তবে নেত্রী বেগম জিয়া জেলে থাকায় কিছুটা ব্যাকফুটে তারা৷ তবে জেলে থাকলেও ‘পাকপন্থী’ জিয়ার প্রভাব রয়েছে বিস্তর৷ বিশেষ করে জামাতের মতো মৌলবাদী দলগুলি বিএনপি-র সমর্থনে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপাবে৷ ফলে নির্বাচনে হিংসার ঘটনা ঘটতে পারে বলেই মনে করছেন বিশ্লেষকরা৷ বিশেষ করে সংখ্যালঘু হিন্দুদের নিশানা করা হয়ে পারে৷ কারণ বাংলাদেশি হিন্দুদের বেশিরভাগই আওয়ামী লীগ সমর্থক৷ ফলে, এরাই জামাত-সহ অন্য উগ্রপন্থী সংগঠনরে সহজ টার্গেট হয়ে উঠতে পারে। ইতিমধ্যেই নির্বাচন চলাকালীন সংখ্যালঘুদের সুরক্ষার দাবিতে পুলিশ কমিশনারের দ্বারস্থ হয়েছে একাধিক হিন্দু সংগঠন।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top